আগামী ২৩ অক্টোবর সিলেটে মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে কর্মসূচি শুরু করবে নবগঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। মঙ্গলবার ( ১৬ অক্টোবর) বেলা ৩ টায় উত্তরায় জেএসডির সভাপতি আসম আবদুর রব নিজ বাড়িতে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান।

বিএনপি, জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়া, জেএসডি ও নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়ে গড়া এই জোটের নেতারা বেলা সাড়ে ১২ টায় উত্তরায় আ স ম আবদুর রবের বাসায় বৈঠকে বসেন।

এ বৈঠক শেষে রব সাংবাদিকদের বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রথম কর্মসূচি হচ্ছে আগামী ২৩ অক্টোবর সিলেটে সফর। এই সফরে মাজার জিয়ারতসহ জনসভা বা সমাবেশ হতে পারে। মাজার জিয়ারতের পাশাপাশি জনগণের উদ্দেশে কিছু বলার জন্য আমাদের কর্মসূচি থাকবে। এরপরে চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনাসহ সব বিভাগীয় শহরে কর্মসূচি দেওয়া হবে। আমরা আশা করবো আমাদের কর্মসূচি যাতে সফল করতে পারি সে জন্য জনগণ সহযোগিতা করবে।

তিনি সরকারের উদ্দেশে বলেন, আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করতে চাই। এজন্য সরকার বা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনও ধরনের অসহযোগিতা হবে বলে আশা করি না।

তিনি আরও বলেন, আগামীকাল আবারও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক আছে। আজকের বৈঠকে ২ টি বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। তা হলো জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক সব দল থেকে লোক নিয়ে একটি লিয়াজোঁ কমিটি গঠন, যারা আগামী দিনের আমাদের কর্মসূচি সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেবে। তবে কারা এই কমিটিতে থাকবে এই বিষয়ে পরে জানানো হবে।

এদিকে, বৈঠকের একটি সূত্রে জানা গেছে, আগামীকাল বুধবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। এছাড়াও বৈঠকে ছিলেন তানিয়া রব, আবদুল মালেক রতন, এস এম আকরাম, শহীদুল্লাহ কায়সার, ডা. জাহেদ উর রহমান,  সুলতান মোহাম্মদ মনসুর।

এএ/টিবি/১৮

কমেন্ট করে সাথেই থাকুন